কুবিতে অপরিকল্পিতভাবে ভবন নির্মাণ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

কুবিতে অপরিকল্পিতভাবে ভবন নির্মাণ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

22

অপরিকল্পিতভাবে ছাত্র হলের পাশেই ছাত্রী হল নির্মাণ এবং স্বল্প জায়গায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কাঠাল তলায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধন শেষে অপরিকল্পিত ভবন নির্মাণ বন্ধের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে ২৪ ঘন্টার সময়সীমা বেধে দেয় শিক্ষর্থীরা।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, উন্নয়নের নামে বিশ্ববিদ্যালয়কে বস্তি বানানো চলবে না। ছাত্র হলের মাত্র কয়েক হাত দূরেই ছাত্রী হল নির্মাণের কাজ চলছে। দুইটি ছাত্র হলের পাশে যে জায়গা আছে সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জোর করেই ছাত্রী হল নির্মাণের কাজ করছে। ছাত্র হলের পাশে কি করে ছাত্রী হল হয়?

মানববন্ধনে বক্তারা আরও বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের জন্য বিশাল পরিসরের জায়গা দরকার কিন্তু প্রশাসন মাত্র কয়েক হাতের মধ্যে ভবনের পাদদেশে ভাস্কর্য নির্মাণ করছে।

মানববন্ধনে ভূমি অধিগ্রহণ, অপরিকল্পিত ভবন নির্মাণ বন্ধ, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব সংযোগ রাস্তা নির্মাণ, সতন্ত্র জায়গায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থপানসহ বেশ কয়েকটি দাবি জানান। শিক্ষকরাও একাত্মতা পোষণ করে মানববন্ধনে যোগ দেন।

মানববন্ধন শেষে উপাচার্যকে অপরিকল্পিত ভবন ও ভাস্কর্য নির্মাণ বন্ধসহ তিন দফা দাবি সম্মিলিত স্মারকলিপি প্রদান করেন শিক্ষার্থীরা। অপরিকল্পিতভাবে ভবন নির্মাণের জন্য যে নির্মাণ যন্ত্রগুলো আনা হয়েছে তা ২৪ ঘন্টার মধ্যে সরিয়ে না নিলে কঠোর আন্দোলনের যাওয়ার কথাও বলা হয় স্মারকলিপিতে।

এ বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আলী আশরাফের সাথে কথা বলতে মুঠোফোনে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।