মেহেরপুরে এক অসহায় পরিবারের মাঝে নগদ টাকা ও খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলেন পৌর মেয়র
নগদ ৫ হাজার টাকা সহ এক মাসের খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন পৌর মেয়র মাহাফুজুর রহমান রিটন
১৩৭

মেহের আমজাদ, মেহেরপুর :  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এবং বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর আহবানে মেহেরপুর জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও মেহেরপুর পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন গাংনীর এক অসহায় দিনমজুর পরিবারের হাতে তুলে দিলেন নগদ টাকা ও খাদ্য সামগ্রী।  শনিবার দুপুরে গাংনী উপজেলার কাজীপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের দিনমজুর হতদরিদ্র স্বামী আলমগীর হোসেন ও তার স্ত্রী রিক্তা খাতুনের মাঝে নগদ ৫ হাজার টাকা সহ এক মাসের খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও মেহেরপুর পৌর মেয়র মাহাফুজুর রহমান রিটন।

খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিল ৫০ কেজি চাউল, ৫ কেজি ডাল, ৫ কেজি পেঁয়াজ, ৩ কেজি চিনি,৫ কেজি আলু ,৫ কেজি মুরগি,৫ লিটার সোয়াবিন তেল, ১ কেজি সেমাই,২ কেজি লবণ, ২ কেজি সুজি । নগদ টাকা ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণের সময় জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন কোরনা ভাইরাসের কারণে কোন কর্মহীন অসহায় মানুষ যেন না খেয়ে থাকে। সে লক্ষে সারা বাংলাদেশে সরকারের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।  কিছুদিন আগে এতিম ও অসহায় রিক্তার কষ্টের কথা পত্রিকা ও বিভিন্ন ভাবে শুনেছি।
তাই তার কষ্ট কিছুটা হলেও দূর করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও বাংলাদেশ যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলের আহবানে রিক্তার পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী দিয়েছি। এখানে এসে জানতে পেরেছি এতিম রিক্তার সাথে একই গ্রামের আর এক এতিম আলমগীরের বিয়ে হয়। নিজের কোন জায়গা জমি নেই, নেই ঘর-বাড়ি। দেশে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে রিক্তার জন্য একটা ঘর তৈরি করার জন্য চেষ্টা করবো।  এ সময় উপস্থিত ছিলেন, গাংনী উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও গাংনী পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলাম, মেহেরপুর পৌরসভার কাউন্সিলর আল মামুন সহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More