মানবিজের নিয়ন্ত্রণ নিতে প্রস্তুত তুরস্ক: ট্রাম্পকে এরদোগান
সিরিয়ার মানবিজের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিতে তুরস্ক প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।
৯৭

মেহেরপুর টুডে ডেস্ক:

সিরিয়ার মানবিজের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিতে তুরস্ক প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। এর আগে গত সপ্তাহে মানবিজে ইসলামিক স্টেট যোদ্ধাদের হামলায় দুই সেনাসহ চার মার্কিন নাগরিক নিহত হয়েছেন।

রোববার এক ফোনালাপে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এরদোগান বলেন, সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে গত মাসে ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত প্রভাবিত করতে উসকানিমূলকভাবে মানবিজে সেনাদের ওপর আত্মঘাতী হামলার ঘটনা ঘটেছে। শহরটি এখনও মার্কিন সমর্থিত কুর্দিশ যোদ্ধাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর সিরিয়া থেকে দুই হাজার মার্কিন সেনা প্রতাহারের ঘোষণা দিয়ে নিজের নিরাপত্তা দলকেও বিস্মিত করেছিলেন ট্রাম্প। সেখানে ইসলামিক স্টেট পরাজিত হয়েছে বলেও ঘোষণা দেন তিনি।

২০১৬ সালে আইএসের হাত থেকে মানবিজের নিয়ন্ত্রণ নেয় যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেস (এসডিএফ)। কিন্তু ট্রাম্পের সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা পরবর্তী দুই দেশের উত্তেজনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন তারা। সেখানে মার্কিন সেনাদের উপস্থিতিই হামলা থেকে তুরস্ককে নিবৃত্ত করছে।

কুর্দিশ প্রটেকশন ইউনিটস বা ওয়াইপিজির সামরিক শাখা হচ্ছে এসডিএফ। আঙ্কারার বিবেচনায় ওয়াইপিজি সন্ত্রাসী সংগঠন ও কুর্দিশ ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) একটি সিরীয় শাখা। পিকেকে গত ৩০ বছর ধরে স্বায়ত্তশাসনের দাবিতে তুরস্কের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে। যাতে নারী-শিশুসহ হাজার হাজার লোক নিহত হয়েছেন।

তবে মানবিজের দায়িত্বগ্রহণে তুরস্কের প্রস্তাব নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি হোয়াইট হাউস। এতটুকু বলেছে, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে আলোচনার মাধ্যমে নিষ্পত্তির ব্যাপারে দুই প্রেসিডেন্ট ঐকমত্যে পৌঁছেছেন।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স বলেন, সিরিয়ায় উপস্থিত অবশিষ্ট সন্ত্রাসী উপাদানগুলোকে পরাজিত করায় জোর দিয়েছেন ট্রাম্প। উত্তর সিরিয়ার বিষয়ে আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের পথে এগিয়ে যেতে দুই নেতা একমত পোষণ করেছেন। এতে দুই দেশ নিজ নিজ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারবে।

তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বাণিজ্য সম্পর্ক বাড়াতে পারস্পরিক স্বার্থের বিষয়েও দুই নেতা আলোচনা করেছেন বলে জানিয়েছেন সারাহ স্যান্ডার্স।

সুত্র: যুগ.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More