নাজমুল হুদা স্বতন্ত্র প্রার্থী
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নাজমুল হুদার মনোনয়নপত্র বৈধতা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।
১০৬

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নাজমুল হুদার মনোনয়নপত্র বৈধতা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। আজ শনিবার কমিশনের কাছে আপিলের শুনানিতে তাঁর মনোনয়ন পত্র বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়। এর ফলে বিএনপি জোট সরকারের সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী নাজমুল হুদা ঢাকা-১৭ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার পর ঢাকা-১৭ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন তৃণমূল বিএনপি এবং বাংলাদেশ ন্যাশনাল অ্যালায়েন্সের চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা। কোনো দলের নাম উল্লেখ না করায় ২ ডিসেম্বর তাঁর মনোনয়নপত্র যাচাইবাছাই করে বাতিল ঘোষণা করেন ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা কে এম আলী আজম। বাছাইয়ের সময় রিটার্নিং কর্মকর্তার উদ্দেশে নাজমুল হুদা বলেন, ‘আমার দল তৃণমূল বিএনপি। বিএনএফ নামে আমার একটা রাজনৈতিক জোট আছে। ১৪ দলীয় জোটের সঙ্গে একত্র হয়ে আমি নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করব।’ তখন রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, ‘না, এভাবে আমরা গ্রহণ করতে পরছি না।’ এ সময় নাজমুল হুদা বলেন, ‘তাহলে স্বতন্ত্র হিসেবে আমাকে দেন।’ এরপর রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, ‘না স্যার, আপনি স্বতন্ত্রও লিখেননি, তাই আপনার মনোনয়নপত্র গ্রহণ করতে পারছি না, বাতিল করা হলো।’

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের যোগাযোগমন্ত্রী ছাড়াও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন নাজমুল হুদা। এরপর দল থেকে বেরিয়ে প্রথমে বিএনএফ গঠন করেন তিনি। নিজের গড়া দলের কর্তৃত্ব হারানোর পর তৃণমূল বিএনপি নামে আরেকটি দল গঠন করে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দিয়ে ঢাকা-১৭ আসনে প্রার্থী হওয়ার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন তিনি। গুলশান, বনানী ও ক্যান্টনমেন্ট এলাকা নিয়ে গঠিত এই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন চিত্রনায়ক ফারুক।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More