দেশের সব স্পর্শকাতর স্থানে বাড়ানো হয়েছে নজরদারি
২২৭

দেশের জঙ্গী গোষ্ঠী ও সংগঠনের গোপন তৎপরতার কঠোর নজরদারি করতে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় আছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ বোমা হামলার ঘটনায় বাংলাদেশীসহ বহু হতাহতের ঘটনায় বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। গোয়েন্দা নজরদারি ও সতর্ক অবস্থার আওতায় আনা হয়েছে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, স্পর্শকাতর স্থান, কূটনৈতিকপাড়া, ভিন্ন ধর্মাবলম্বীর উপাসনালয় ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা। বাংলাদেশে কোন জঙ্গী হামলার হুমকি নেই, তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক অবস্থায় আছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ বোমা হামলার পর ঘাপটি মেরে থাকা জঙ্গী গোষ্ঠীর সদস্যরা উত্তেজনায় উজ্জীবিত, গোপন তৎপরতায় উৎসাহিত হয়ে নাশকতা বা ধ্বংসাত্মক ঘটনা যাতে ঘটাতে না পারে সে জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় ও গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়েছে বলে গোয়েন্দা সংস্থার দাবি।

গোয়েন্দা সংস্থার সূত্রে জানা গেছে, শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ বোমা হামলার ঘটনার আগে গত মাসে নিউজিল্যান্ডে সশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলায় বাংলাদেশী হতাহতের ঘটনার পর রাজধানীসহ বাংলাদেশে আবারও জঙ্গী হামলা ও নাশকতার আশঙ্কা করা হয়। গত মাসেও জঙ্গী হামলার আশঙ্কায় কূটনৈতিক পল্লীসহ রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন স্থাপনা ও স্পর্শকাতর স্থানের নিরাপত্তা জোরদার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সতর্ক অবস্থায় রাখার নির্দেশ দেয় সরকার। সেই সময় নব্য জেএমবির শীর্ষ নেতা আবু আল বাঙালী নামে জঙ্গীকে খুঁজতে থাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এই আবু আল বাঙালীই নিজেদের অন লাইন গ্রুপে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ ‘কাফের’দের ওপর হামলা চালানোর আহ্বান জানিয়েছে। নিরাপত্তা জোরদারের পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করারও নির্দেশনা দেয়া হয়।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক আছে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, শ্রীলঙ্কায় রবিবারের ভয়াবহ বোমা হামলার ঘটনায় বাংলাদেশ সতর্ক আছে। বাংলাদেশে কোন হুমকি নেই। তিনি বলেন, বাংলাদেশে কোন রেড এ্যালার্ট জারি করা হয়নি। তবে আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সতর্ক ছিল এবং আছে।

শ্রীলঙ্কায় ওই বোমা হামলায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী শেখ সেলিম এমপির নাতি জায়ান চৌধুরী মারা গেছে। জামাতা মশিউল হক চৌধুরী গুরুতর আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় সোমবার ২২ এপ্রিল দুপুরে রাজধানীর বনানীতে শেখ সেলিম এমপির বাসায় এসে তাকে শান্তনা দিয়ে চলে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে হলি আর্টিজানের ঘটনার পর আমরা শক্ত হাতে তা দমন করেছি। এখন বাংলাদেশে কোন জঙ্গী তৎপরতা নেই। এ দেশের মানুষ জঙ্গীবাদ পছন্দ করেন না।

পুলিশের এন্টি টেররিজম ইউনিটের এক কর্মকর্তা বলেন, রাজধানীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা ও সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তায় পুলিশের পাশাপাশি এন্টি টেররিজম ইউনিটও কাজ করছে। এই মুহূর্তে জঙ্গীরা দুর্বল। বড় ধরনের হামলা চালানোর সক্ষমতা তাদের নেই। তবু আমাদের কাজ হচ্ছে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষাসহ জঙ্গীবাদ মোকাবেলায় কাজ করা। সেটা আমরা যথাযথভাবে করে যাচ্ছি। যেকোন অপশক্তির মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত আছি। dailyjanakantha.com

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More