একলা ভ্রমণে নিজেকে জানা যায়
একা ভ্রমণ অজানা জগতে আপনার খাপ খাওয়ানোর যোগ্যতা বাড়াবে
৪৫

নিজের আঙিনায় ভ্রমণ না করলে জীবনের মানে খুঁজে পাওয়া যায় না। কথাটি আগা-গোড়া সত্য। নিজেকে পাঠ করতে হবে আগে। আর একা একা সময় কাটানোর মধ্য দিয়ে তা সম্ভব। একা ভ্রমণ অজানা জগতে আপনার খাপ খাওয়ানোর যোগ্যতা বাড়াবে এবং আপনাকে নিজের আগ্রহ, সীমাবদ্ধতা নির্ণয়ে সহায়তা করবে।একা ভ্রমণ যেসব ক্ষেত্রে উপকারী ভূমিকা রাখে-

যোগাযোগ দক্ষতা: নতুন পরিবেশে নতুন মানুষের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তোলার সুযোগ পাওয়া যায়। এতে যোগাযোগ দক্ষতা বাড়ে। আপনি যদি অন্তর্মুখী স্বভাবের হয়ে থাকেন, তবে এখনই সময় নিজেকে ঝালিয়ে নেবার। তবে সতর্কতার সঙ্গে করতে হবে প্রতিটি কাজ।
নতুন মানুষের প্রেমে পড়া: প্রেমে পড়তে কার না ভালো লাগে! সবাই চায় সারাজীবন একসঙ্গে থাকার মতো পছন্দসই কাউকে খুঁজে পেতে। সিনেমায় দেখা যায় একজন মানুষ একা ঘুরতে ঘুরতে প্রিয় কারো দেখা পেয়ে গেছে। এমনটা কিন্তু বাস্তব জীবনেও ঘটে থাকে। আগে থেকে কেউ জানে না কখন সে অজানা মানুষের কাছাকাছি চলে যায়।
নিজেকে জানা: নিজেকে জানার সবচেয়ে উত্তম উপায় হচ্ছে একা ভ্রমণ। এর মাধ্যমে ভয় এবং হতাশা মোকাবেলা করা যায়। চলতে চলতে অজানা বিষয়ের দ্বারা আপনি শঙ্কিত কিংবা বিস্মিত হতে পারেন। যা আপনার শক্তি এবং দুর্বলতাগুলোকে আবিষ্কার করবে।
ঝুঁকি গ্রহণের ক্ষমতা: কাজ থেকে বিরতি নিয়ে ঘুরতে যাওয়া খুব কঠিন কিছু নয়। গুরুত্বপূর্ণ কাজ রেখে একা বেরিয়ে পড়া আপনার ঝুঁকি গ্রহণের মনোভাব গড়ে তুলবে।
নিজেকে নমনীয় করে তোলা: ভ্রমণের ফ্লাইট মিস করা, হঠাৎ পরিকল্পনা বাতিল করা ইত্যাদি চরম বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। একা থাকলে এসব পরিবেশে মানিয়ে নেয়া সহজ হয়। নিজের মতো করে সিদ্ধান্তও নেয়া যায় যে কোন বিষয়ে।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More